শিরোনামঃ
দেড় কিলোমিটার হেঁটে চাচাকে মাথায় করে হাসপাতালে নিলেন ভাতিজা আটকে পড়াদের আমিরাতে ফেরার জন্য নির্দেশিকা দিলো এমিরেটস কাতারে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে নতুন সিদ্ধান্ত, কিছু বিধিনিষেধ শিথিল ঢাকা থেকে আরব আমিরাতগামী ফ্লাইটে ট্রানজিট যাত্রী পরিবহনের অনুমতি ৩০ মিনিট পরীর বাসার সামনে থেকে ব্যবসায় সবুজ বাতি এমদাদের কাতারের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক চমৎকার: সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আটক হচ্ছেন চিত্রনায়িকা পরীমণি, বাসায় র‌্যাবের অভিযান চলছে লাইভে এসে চিৎকার করছেন পরীমনি, দরজার বাইরে পুলিশ বিয়েতে যাওয়া হলো না বরপক্ষের, নৌকায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে পরে আছে ২০ জনের লাশ হোটেলে বমি করে ভাঙচুর চালালেন অস্ট্রেলিয়ার খেলোয়াড়রা
হেফাজতের মহাসচিব হতে পারেন মামুনুল হক

হেফাজতের মহাসচিব হতে পারেন মামুনুল হক

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমির মৃত্যুর পর খালি হয়েছে পদটি। অনেক জটিল প্রক্রিয়ার পর কাউন্সিল করে তাকে এই পদে দায়িত্ব দেয়া হিয়েছিল। কিন্তু এর অল্প কিছুদিন পরেই পদটি শূন্য হয়ে যাওয়ায় নতুন করে আবারও ভাবনায় পড়লেন হেফাজত নেতৃবৃন্দ।

 

আল্লামা কাসেমির মৃত্যুর পর নানা দিক বিবেচনায় এখন পর্যন্ত কাউকে তার পদে ভারপ্রাপ্ত করা যায়নি। তবে সংগঠনের শীর্ষস্থানীয় নেতৃবৃন্দের বৈঠকে এই পদ পূরণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়ছে। কয়েকদিনের মাঝেই চুড়ান্ত করা হবে কে বসছেন এই পদে।

 

হেফাজতের কমিটিতে যুগ্ম মহাসচিব হিসাবে আছেন চারজন। তারা হলেন- মাওলানা জুনাইদ আল হাবিব, মাওলানা মামুনুল হক, মাওলানা নাছির উদ্দিন মুনির ও মাওলানা লোকমান হাকিম।

 

এর আগে সর্বশেষ কাউন্সিলে মহাসচিব পদে বসার আলোচনায় ছিলেন খেলাফত আন্দোলনের আমির ও হেফাজতের নায়েবে আমির মাওলানা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী। তাকে নিয়েও আলোচনা হচ্ছে মহাসচিব হিসাবে পদ পাওয়ার। আবার মামুনুল হককে নিয়েও চলছে নানা গুঞ্জন।

 

গত ১৮ সেপ্টেম্বর হেফাজত আমির আল্লামা আহমদ শফীর মৃত্যুর পর সংগঠনের শীর্ষ পদ নিয়ে শুরু হয় বিভক্তি। তখন একাংশের বিরোধীতা সত্যেও ১৫ নভেম্বর জাতীয় কাউন্সিল ডাকে সংগঠনটি। তে আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরীকে আমির ও আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমীকে মহাসচিব করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© ২০২১ | বিডি রাইট কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design BY NewsTheme