শিরোনামঃ
কাতারে জাতীয় আইনসভা নির্বাচনের মোট প্রার্থীর সংখ্যা ঘোষণা শাহজালাল বিমানবন্দরে পিসিআর ল্যাব স্থাপন নিয়ে শুরু নতুন সংকট বিকল্প উপায়ে আমিরাত যাচ্ছেন আটকে থাকা প্রবাসীরা, ব্যয় হচ্ছে ৫ গুণ বেশি কাতারে থাকা বাংলাদেশিদের ফোনে কল দিয়ে চাওয়া হচ্ছে তথ্য, দূতাবাসের সতর্কতা সাইকেল চালিয়ে এক্সপো পরিদর্শনে আরব আমিরাতের প্রধানমন্ত্রী কাতারে আজ থেকে শ্রমিকদের জন্য কর্মবিরতির মেয়াদ শেষ বিমানে দেশে বা বিদেশে ভ্রমণের আগে যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখা জরুরি তিন দিনে বিমানবন্দরের বসছে পিসিআর ল্যাব, দায়িত্ব পেল ৭ প্রতিষ্ঠান বিদেশ থেকে কার্গোতে দেশে মালামাল পাঠানো নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য কাতারে তৃতীয় ডোজের টিকা দেওয়া শুরু, আগে যারা পাবেন অগ্রাধিকার
মশার কারণে রাতে ঘুমাতে পারিনি, এতজন একসঙ্গে থাকতে কষ্ট হচ্ছে: পরীমনি

মশার কারণে রাতে ঘুমাতে পারিনি, এতজন একসঙ্গে থাকতে কষ্ট হচ্ছে: পরীমনি

ঢাকাই সিনেমার আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনি। সম্প্রতি তিনি মা’দক মা’ম’লায় গ্রে’ফতার হয়েছেন। মাদ’ক মাম’লায় পরীমনির তৃতীয় দফায় রিমা’ন্ড শেষে গেলো ২১ আগস্ট দুপুরে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) আদালতে তোলা হলেও জা’মিন পাননি তিনি। ঢাকা মহানগর হাকিম আশেক ইমাম নায়িকাকে কা’রাগা’রে পাঠানোর আদেশ দেন।

 

বর্তমানে তাকে গাজীপুরের কাশিমপুর মহিলা কেন্দ্রীয় কা’রাগারে রাখা হয়েছে। দেশীয় একটি গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে- কারা সূত্র জানায়, গত ১৩ আগস্ট সন্ধ্যায় পরীমনিকে কাশিমপুর মহিলা কা’রাগারে নিয়ে আসা হয়। সেখানে তাকে আরো ১৩ জনের সঙ্গে কো’য়ারে’ন্টিন সে’লে থাকতে দেওয়া হয়েছে। পরদিন ১৪ আগস্ট সকালের দিকে মহিলা ডাক্তার গিয়ে পরীমনির স্বাস্থ্য পরীক্ষাসহ তার শনা’ক্তকা’রী চি’হ্ন লিপিব’দ্ধ করেছেন।

 

প্রত্যেক আসা’মিকে কা’রাগারে নিয়ে যাওয়ার পর কারাগারের রেজিস্ট্রারে তার নাম-পরিচয়সহ সব কিছু লেখা হয়। পরীমনির ক্ষেত্রেও ব্যতিক্রম ঘটেনি। কারা কর্মকর্তারা রেজিস্ট্রারে তার নাম-ঠিকানাসহ তথ্য লিপিব’দ্ধ করতে যান। ওই সময় এক কারা কর্মকর্তা পরীর কাছে জানতে চান, ‘কেমন আছেন আপনি?’

 

পরীমনির জবাব, ‘ম’শার কারণে সারা রাত ঘুমাতে পারিনি। এতজন একস’ঙ্গে থাকতে গিয়েও ক’ষ্ট হচ্ছে। এভাবে কোনো দিন থাকিনি। অশা’ন্তিতে আছি।’ পরে কারা কর্মকর্তারা নায়িকাকে বলেন, ‘কা’রাগারে শান্তির খোঁজ করলে চলবে? কা’রাগার চলে কা’রাবিধি অনুযায়ী। ব’ন্দী হিসেবে আপনি যা সুবিধা পাওয়ার কথা, এর বেশি পাবেন না।’

 

‘আপনি ম্যারিড, নাকি আনম্যারিড?’ কারা কর্মকর্তার এই প্রশ্নের জবাবে পরী বলেন, ‘আমি আনম্যারিড।’ কা’রাগারের রেজিস্ট্রারে সেই তথ্যই লেখা হয়েছে। যদিও পরীর এ’কাধিক বিয়ের খবর প্রচলিত আছে। এক কারা কর্মকর্তা বলেন, ব’ন্দী কা’রাগারে যাওয়ার পর রেজিস্ট্রারে তার পরিবারের সবার নাম লিখে রাখা হয়।

 

যখন তার মু’ক্তি মেলে তখন ওই তথ্য নতুন করে যাচাই করা হয়। তিনি উদাহরণ দিয়ে বলেন, ধরুন একজন বললো তার তিন ছেলে আছে। তখন জিজ্ঞেস করা হয়, আপনার মেজো ছেলের নাম কী? বলার পর সেটা রেজিস্ট্রারে লিখে রাখা হয়। মুক্তির সময় তাকে জিজ্ঞেস করা হয়, আপনার মেজো ছেলের নাম কী? যদি নামের গরমি’ল না হয় তাহলে ধরে নেয়া হয় যে সঠিক ব্যক্তিকেই মু’ক্তি দেওয়া হচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© ২০২১ | বিডি রাইট কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design BY NewsTheme