বিয়ে করতে পারলেন না কাতার প্রবাসী, কনের বাড়ির গেট থেকে আটক

বিয়ে করতে পারলেন না কাতার প্রবাসী, কনের বাড়ির গেট থেকে আটক

কাতার প্রবাসী শামিম আহমদ (২৬)। আজ তার বিয়ে। তাই বর সেজে কনের বাড়ি যাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু প্রেমিকার আনা ধ’র্ষণে’র অভি’যোগে তাতে বা’ধ সাধে পুলিশ। কনের বাড়িতে প্রবেশের আগেই গেট থেকে বরকে গ্রে’ফতার করে থানায় নিয়ে যায় তারা। সোমবার (২১ মার্চ) দুপুরে মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার পাঁচগাঁও ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।

 

শামিম রাজনগর উপজেলার কামারচাক ইউনিয়নের মশাজান গ্রামের মৃত আব্দুল খালিকের ছেলে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শামিম আহমদের সঙ্গে ১২ বছর আগে একই গ্রামের এক তরুণীর সম্প’র্ক ছিল। সেই সুবাদে উভয়ের মধ্যে শারী’রিক সম্পর্কও হয় বলে দাবি অভিযো’গকারী মেয়েটির। কিন্তু বিয়ে হওয়ার আগেই শামিম প্রবাসে চলে যান। সাত বছর পর দেড় মাস আগে কাতার থেকে দেশে আসেন তিনি।

 

এতদিন ওই তরুণীর সঙ্গে মেবাইলফোনে যোগযোগ ছিল। সাত বছর পর দেশে এসে শামিমের অন্য জায়গায় বিয়ে ঠিক হয়। সোমবার বর সেজে শামিম যখন কনের বাড়ির দিকে যাত্রা শুরু করেন ঠিক তখনই তার আগের প্রেমিকা থানায় লিখিত অভি’যোগ নিয়ে হাজির হন। অভিযোগ পেয়ে রাজনগর থানার পুলিশ কনের বাড়ির গেট থেকে বরকে আ’টক করে।

 

থানায় অভিযো’গকারী তরুণী জাগো নিউজকে বলেন, ‘সে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে আমার সঙ্গে শারীরিক সম্প’র্ক করে। কিন্তু এখন দেশে এসে আমাকে বিয়ে না করে অন্য জায়গায় বিয়ে করতে যাচ্ছে। তাই আমি অভিযো’গ দিয়েছি।’ পাঁচগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম চানা জাগো নিউজকে বলেন, ‘মেয়ে দাবি করেছে ১২ বছর ধরে তাদের সম্প’র্ক।

 

কিন্তু ছেলে সাত বছর পর দেড় মাস আগে দেশে এলেও কখনো স্থানীয় চেয়ারম্যান মেম্বারদের বিষয়টি জানায়নি বা বিচারপ্রার্থী হয়নি। তার এমন অভি’যোগের কোনো তথ্য-প্রমাণও নেই। অথচ বিয়ের দিন এসে অভি’যোগ করেছে। রাজনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নজরুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, ‘এক তরুণীর লিখিত অভিযো’গের ভিত্তিতে বরকে আট’ক করে নিয়ে আসা হয়েছে। তার বিরু’দ্ধে ধর্ষ’ণ মাম’লা হয়েছে। এ বিষয়ে আরও তদন্ত’ চলছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন




© ২০২১ | বিডি রাইট কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design BY NewsTheme